1. shahinit.mail@gmail.com : admin :
  2. alorpathajatri7@gmail.com : সফুরউদ্দিন প্রভাত : সফুরউদ্দিন প্রভাত
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন

মানুষ মূলত ভালো!

প্রতিবেদক
  • প্রকাশ কাল শুক্রবার, ১৯ জুন, ২০২০

আলোর পথযাত্রী ডট কম : মানুষ মূলত ভালো, খারাপ মানুষের চেয়ে ভালো মানুষের সংখ্যাই বেশি এমন কথা অহরহ আমরা বলে যাই। তবে তা বরাবরই ধারণাভিত্তিক।

এবার খোদ গবেষণা দিয়েই তা প্রমাণ করে দিলেন মনোবিজ্ঞানীরা। তাদের গবেষণালব্দ জ্ঞান বলছে অধিকাংশ মানুষই আসলে নিজের জন্য ভালো কাজটি বেছে নেয়। মানুষের মস্তিষ্ক মন্দ পথে অর্থ উপার্জনের চেয়ে ভালো পথের আয়ে বেশি সায় দেয়।

গবেষণাটি করেছে যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন। এর বিজ্ঞানীরা ভিন্ন ভিন্ন পথে অর্থ আয়ে মস্তিষ্ক কিভাবে সাড়া দেয়, সেটাই গবেষণা করে বের করেছেন।

গবেষণার মূল লেখক ড. মলি ক্রোকেট এ নিয়ে বললেন, আমরা যখন সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর্যায়ে থাকি তখন আমাদের মস্তিষ্ক দ্রুত তার ভিন্ন ভিন্ন দিকগুলোর ভালোমন্দ বিচার করে নেয়। মস্তিষ্কের নানা অংশের মধ্যে একটা হিসাব-নিকাশের চালাচালিও চলে। দেখা গেছে এই নেটওয়ার্কে মন্দের প্রতি সাড়া কম। আর অধিকাংশ মস্তিষ্কই বার্তা দিতে থাকে অন্যের ক্ষতি করে কোনও আয়ে তার আগ্রহ নেই।

‘আমাদের গবেষণা বলছে, অধিকাংশ মানুষের কাছে অর্থ বড় কোনও বিষয় নয়,’ বলেন ক্রোকেট।

গবেষণায় অংশ নেওয়া স্বেচ্ছাসেবীদের বলা হলো তারা ইলেক্ট্রিক শক দেবেন কিংবা নেবেন। আরেকজনের গায়ে শক দিলে দেওয়া হবে একটি নির্দিষ্ট অংকের অর্থ আর নিজের গায়ে শক নিলেও পাবেন সমপরিমান অর্থ। মোট আটাশ জুটি এই প্রক্রিয়ায় অংশ নেন। আর যখন তারা সিদ্ধান্ত নিচ্ছিলেন তখন পুরো প্রক্রিয়াটিতে মস্তিষ্ক কিভাবে কাজ করে তা স্ক্যান করা হয়। বলাই বাহুল্য শকগুলো ব্যাথাদায়ক ছিলো তবে সহনীয় পর্যায়ে।

শক দিলেন কিংবা নিলেন, যে কোনওটার বিনিময়েই মিলবে অর্থ। আর দেখা গেলো অন্যের গায়ে শক দিয়ে অর্থ নেওয়ার চেয়ে বরং নিজেই শক নিতে চাইলেন বেশি সংখ্যক মানুষ। এ দিয়ে তাদের নৈতিকতার বিষয়টিই স্পষ্ট হলো। কারণ অর্থ পাবেন জেনেও তারা অন্যকে সামান্য হলেও অমন আঘাত দিতে চাননি।

শেয়ার করে পাশে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই পাতার আরো খবর
© All rights reserved © 2021 Jee Bazaar
Theme Customized BY WooHostBD